Ticker

5/recent/ticker-posts

ক্বুরআনুল কারীমের জীবন ঘনিষ্ঠ তিনটি আয়াত



আমার বেঁচে থেকে কি লাভ? 

(১) এই দুনিয়াতে এসে শুধুমাত্র খেয়ে-পরে উদ্দেশ্যহীন বেঁচে থাকা, নিজের প্রবৃত্তির অনুসরণ করে আনন্দ-ফূর্তি করা, পশুর মতো বংশ বৃদ্ধি করে দুনিয়া থেকে বিদায় নেওয়ার জন্য আপনাকে পাঠানো হয়নি। বরং আপনার সৃষ্টিকর্তা এক মহান উদ্দেশ্য নিয়ে আপনাকে সৃষ্টি করেছেন। 

মহান আল্লাহ তাআ’লা বলেন,

وَمَا خَلَقْتُ الْجِنَّ وَالْإِنسَ إِلَّا لِيَعْبُدُونِ

“আমি জিন ও মানুষকে সৃষ্টি করেছি শুধুমাত্র আমার ইবাদত করার জন্য।” সুরা আয-যারিয়াতঃ ৫৬।  

অর্থাৎ আপনার জীবনের একমাত্র লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে, আল্লাহর ‘ইবাদত’ করা। 

*ইবাদত অর্থ কি?

শায়খুল ইসলাম ইমাম ইবনে তাইমিয়া (মৃত্যু ৭২৮ হিজরী) রহি’মাহুল্লাহ বলেন, 

“ইবাদত হচ্ছে এমন কথা ও কাজ; যা আল্লাহ তাআ’লা পছন্দ করেন বা ভালোবাসেন। আমাদের ইবাদতগুলো দুইভাগে বিভক্ত। প্রথমতঃ একপ্রকার ইবাদত হচ্ছে আভ্যন্তরীণ বা অন্তরের ইবাদত, যেমন আল্লাহর উপর বিশ্বাস রাখা, আল্লাহর প্রতি ভয় এবং আশা রাখা, তাঁর উপর ভরসা করা ইত্যাদি। দ্বিতীয়তঃ আরেক প্রকার ইবাদত হচ্ছে বাহ্যিক বা দেহের বিভিন্ন অংগ প্রত্যংগের। যেমন সালাত, সাওম, হজ্জ, দাওয়াত ও জিহাদ। অনুরূপভাবে পিতা-মাতার আনুগত্য ও সেবা করা, প্রতিবেশীদের সাথে উত্তম আচরণ করা, দুঃস্থদের সাহায্য করা...এই কাজগুলো আল্লাহ পছন্দ করেন, সুতরাং এগুলোও ইবাদতের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত।” “আল-উবুদিয়াহ” (ইবাদতের মর্মকথা), ইবনে তাইমিয়া রহি’মাহুল্লাহ। 

_______________________________

(২) আপনার বেঁচে থাকার একমাত্র মিশন হচ্ছে, আল্লাহ তা’লার দাসত্ব করা, তাঁকে ভালোবাসা, তাঁর সাথে কোন কিছুকে শরীক না করা, তাঁর আদেশ মেনে চলা এবং নিষেধ থেকে দূরে থাকা।

মহান আল্লাহ তাআ’লা বলেন,

قُلْ إِنَّ صَلاَتِي وَنُسُكِي وَمَحْيَايَ وَمَمَاتِي لِلّهِ رَبِّ الْعَالَمِينَ

“(হে নবী!) আপনি বলুন, “নিশ্চয়ই আমার সালাত, আমার কুরবানি এবং আমার জীবন ও আমারা মৃত্যু, শুধুমাত্র বিশ্ব জাহানের পালনকর্তা আল্লাহর জন্য।” সুরা আনআ’মঃ ১৬২।

_______________________________

(৩) এই দুনিয়াতে আমাদেরকে অল্প সময়ের জন্য একটা মহান লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য দিয়ে পাঠানো হয়েছে। নির্দিষ্ট সময় শেষ হয়ে যখন আমাদের মৃত্যু হবে তখন আমাদেরকে প্রশ্ন করা হবে, দুনিয়ার জীবনে আমরা কি আমল করেছি? 

মহান আল্লাহ তাআ’লা বলেন,

إِنَّا لِلَّهِ وَإِنَّا إِلَيْهِ رَاجِعُونَ،

“নিশ্চয় আমরা আল্লাহর জন্য এবং আমরা তাঁরই কাছে ফিরে যাবো।” সুরা আল-বাক্বারাহঃ ১৫৬।

প্রখ্যাত তাবেয়ী বিদ্বান হাসান আল-বসরী (মৃত্যু ১১০ হিজরী) রহি’মাহুল্লাহ বলেন, “ইন্না লিল্লাহ” এই কথার অর্থ হচ্ছে, আমি আল্লাহর একজন বান্দা। আর “ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউ’ন” এই কথার অর্থ হচ্ছেঃ আমি আল্লাহর কাছে ফিরে যাবো। সুতরাং আপনি যদি জেনে থাকেন যে, আপনি আল্লাহর একজন বান্দা এবং আপনাকে আল্লাহর কাছে ফিরে যেতে হবে, তাহলে আপনি এটাও জেনে রাখুন, (দুনিয়ার জীবনে আপনি কি আমল করছেন সেই ব্যাপারে) আল্লাহ আপনাকে প্রশ্ন করবেন। সুতরাং আপনি আল্লাহকে কি জবাব দেবেন সেই ব্যাপারে প্রস্তুতি গ্রহণ করুন।”  

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ